৩ দিনে ঢাকায় ২৩ লাখ মানুষের প্রবেশ

জাতীয়

গত তিনদিনে ঢাকায় প্রায় ২৩ লাখ মানুষ প্রবেশ করেছেন। এরমধ্যে সোমবার (১৭ মে) একদিনেই প্রবেশ করেছেন ১২ লাখের বেশি মানুষ। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঈদ করতে যাওয়া এসব মানুষ এখনও রাজধানীতে ফিরছেন।

ঢাকা ছেড়ে যাওয়া এবং ফেরত আসা মানুষের মোবাইল অপারেটরের তথ্যভাণ্ডার ও কল প্রবণতা বিশ্লেষণ করে মঙ্গলবার (১৮ মে) ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এ তথ্য জানিয়েছেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, তথ্য বিশ্লেষণ করে জানা গেছে- গত তিনদিনের মধ্যে সোমবার সবচেয়ে বেশি মানুষ ঢাকায় প্রবেশ করেছেন। এ সংখ্যাটি ১২ লাখ ৫ হাজার ৮৭৮ জনের। আর তিনদিনে মোট ২২ লাখ ৮২ হাজার ৯৫৪ জন সিম ব্যবহারকারী ঢাকায় প্রবেশ করেছেন।

এরমধ্যে রয়েছেন গ্রামীণফোনের ১০ লাখ ১ হাজার ৩৬৯, রবির ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৫৪১, বাংলালিংকের ৬ লাখ ৭৩ হাজার ৪৬০ ও টেলিটকের ১ লাখ ৪১ হাজার ৫৮৪ জন গ্রাহক।

এদিকে মোবাইল সিম ব্যবহারকারীর হিসাব ধরে দেখা যায়, গত ৪ মে থেকে ১৫ মে পর্যন্ত ১২ দিনে এক কোটির বেশি মানুষ ঢাকা ছেড়েছেন। আর শনিবার (১৫ মে) একদিনে ঢাকায় প্রবেশ করেছেন ৪ লাখের বেশি।

আলাপকালে মোস্তাফা জব্বার ঢাকা পোস্টকে বলেন, এখানে তিনটি বিষয় জানা জরুরি। প্রথমত আমাদের দেশে প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী ১৮ বছরের নিচে কেউ সিম কার্ড কিনতে পারেন না। এই হিসাবটা শুধুমাত্র সিম ব্যবহারকারীদের নিয়ে করা হয়েছে।

দ্বিতীয়ত একজন ১৫টা পর্যন্ত সিম কিনতে পারেন। তৃতীয়ত অনেকেই একাধিক সিম মোবাইলে ব্যবহার করেন। সুতরাং এক্ষেত্রে ব্যক্তি হিসাব করলে চলবে না। ১৮ বছরের নিচে অনেকেই ঢাকার বাইরে গেছে। যাদের নামে কোনো সিম নেই। তাদের হিসাবটাও কিন্তু আসেনি। এসব হিসাব মিলিয়েই মোট পরিসংখ্যান বের করতে হবে।

তিনি বলেন, আমি এই হিসাবটি সংগ্রহ করেছি। আসলে কী পরিমাণ মানুষ ঢাকার বাইরে গেছেন এবং কী পরিমাণ মানুষ ফিরতে শুরু করেছেন তা জানা দরকার। লকডাউন শেষে হয়তো একটা পরিসংখ্যান তুলে ধরা হবে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, কোন এলাকায় কত করোনা আক্রান্ত রোগী রয়েছেন তার হিসাবও আমাদের পক্ষে বের করা সম্ভব। আগেও বলেছিলাম এখনও বলছি, ঈদের নামে কতজন কী নিয়ে বাড়ি গেছেন আর কতজন কী নিয়ে ফেরত আসছেন তা ভবিষ্যতই বলতে পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *