এই পাঁচটি গাছ বাড়িতে পোঁতা মোটেই শুভ নয়, ভুগতে পারেন আর্থিক সংকটে

অন্যান্য

বাস্তুশাস্ত্রে বলা হয়েছে গাছের গুরুত্ব অপরিসীম। গাছের সঙ্গে পজিটিভ এনার্জি জড়িয়ে থাকে। আমাদের চারিপাশে সবুজের সমারোহ থাকলে অক্সিজেনের লেবেলও যথাযথ থাকে। তাই বাড়িতে এখন সেইসব কাছে রাখা উচিত যেগুলি পজিটিভ এনার্জি বিকিরণ করে।

বাস্তু মতে কিছু কিছু গাছ থেকে নেগেটিভ এনার্জি বিকিরণ হয়। আজকের প্রতিবেদনে এমন পাঁচটি গাছের কথা বলা হয়েছে যেগুলি বাড়িতে কখনই পোঁতা উচিত নয়। তাদের নেগেটিভ এনার্জি কারনে সংসারে বড়োসড়ো ক্ষতি এবং আর্থিক দিক দিয়েও সংকট দেখা দিতে পারে। এবার জেনে নেওয়া যাক:-

১) খেজুর গাছ: অনেকেই বাড়িতে খেজুর গাছ লাগান। তবে বাস্তু মতে এটি বাড়ির পক্ষে একেবারেই শুভ। এর ফলে পুরো পরিবার আর্থিক সঙ্কটে ভুগতে পারে। এই গাছ দেখতে ভালো এবং ফলও সুস্বাদু তবে এই গাছ বাড়িতে না রাখায় ভালো।

২) তালগাছ: খেজুরের মতো আরো একটি গাছ যাকে বাড়িতে জায়গা না দেওয়াই উচিত তা হলো তাল। তালের শাঁস কিংবা বড়া খেতে সুস্বাদু হোক না কেন তবুও এটিকে বাড়িতে পুঁতবেন না। কারণ এই গাছ থেকে অশুভ শক্তি নির্গত হয়। এমনটাও শোনা যায়, যে বাড়িতে তালগাছ থাকে সেই বাড়িতে লক্ষীদেবী বাস করে না, তাই তারা আর্থিক সংকটে ভোগেন।

৩) তেঁতুল গাছ: অশুভ শক্তিকে বাড়ির মধ্যে দেখতে না চাইলে কখনোই তেঁতুল গাছ বাড়িতে পুঁতবেন না। বাস্তুমতে এই গাছ বাড়িতে থাকলে অশুভ আত্মার উপস্থিতি অনুভব করা যায় এবং পরিবারের সকলের মধ্যে নেগেটিভ ধারণা চলে আসে। এছাড়াও তেঁতুল গাছ স্বাস্থ্যের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।

৪) মাদার গাছ: বাড়ির মধ্যে কখনোই মাদার গাছ পোঁতা উচিত নয় কারণ এই গাছ থেকে অশুভ শক্তি নির্গত হয়। বাড়ির মধ্যে এই গাছ থাকলে অশুভ শক্তির প্রভাবে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন।

৫) অশ্বথ গাছ: মন্দিরের মধ্যে অশ্বথ গাছ দেখতে পেয়ে অনেকেই মনে করেন এটিকে বাড়িতে রাখা শুভ, কিন্তু এই ধারণা একেবারেই ভুল। বাস্তুমতে এই গাছ ভুলেও পুঁতবেন না বাড়িতে। এমনকি বাড়িতে এই গাছের চারা বের হলেও সরিয়ে ফেলুন। এই গাছ কেবল মন্দির জন্য শুভ, বাড়ির জন্য নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *