শাটডাউন মানে কি?

জাতীয়

করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরণ শনাক্ত হওয়ায় সারাদেশে ১৪ দিনের শটডাউনের সুপারিশ করেছেন করোনা বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। তবে ইতোপূর্বে দেশে শাটডাউন জারি না করায় এসম্পর্কে জনমনে কোনো ধারণা নেই।

জানা যায়, লকডাউন ও কঠোর লকডাউনের মত শাটডাউনেও কঠোরতর বিধি নিষেধ থাকতে পারে। তখন জরুরি সেবা ব্যতীত সব ধরণের কার্যক্রম বন্ধ থাকতে পারে।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) করোনা বিষয়ক কারিগরি পরামর্শক সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

শাটডাউন মানে হচ্ছে, সবকিছু বন্ধ থাকা। জরুরি সেবা ছাড়া অফিস-আদালত, বাজার-ঘাট, গণপরিবহণসহ সব বন্ধ থাকবে। সবাই বাসায় থাকবে। এমনটাই জানিয়েছেন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ।

তিনি জানান, জরুরি সেবা বলতে ওষুধ, ফায়ার সার্ভিস, গণমাধ্যম ছাড়া সবকিছু দুই সপ্তাহ বন্ধ করে মানুষ যদি এই স্যাক্রিফাইস-কষ্টটুকু মেনে নেয়, তাহলে আগামীতে ভালো হবে।

তিনি আরও জানান, দিল্লি এবং মুম্বাইতে শাটডাউন দিয়ে ফলাফল পেয়েছে। সেখানে ৬ সপ্তাহ গণপরিবহন বন্ধ ছিল, এছাড়া দিল্লিতে আরও ৩ সপ্তাহ ছিল। দিল্লিতে প্রতিদিন একসময় ২৮ হাজার শনাক্ত হতেন, কিন্তু এখন সেখানে ১৫০ শনাক্ত হচ্ছেন। মৃত্যুও কমে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *