আবারও সারাদেশে কঠোর লকডাউন ঘোষনা

জাতীয়

কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধকলপে আগামী সোমবার (২৮ জুন) থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সারাদেশে কঠোর লকডাউন পালন করা হবে। প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার শুক্রবার (২৫ জুন) রাতে এ তথ্য জানান। এ লকডাউনের সময় জরুরি পরিষেবা ছাড়া সকল সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে।

জরুরি পণ্যবাহী ব্যতীত সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। অ্যাম্বুলেন্স ও চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে যানবাহন শুধু চলাচল করতে পারবে। জরুরি কারণ ছাড়া বাড়ির বাইরে কেউ বের হতে পারবেন না। গণমাধ্যম এর আওতাবহির্ভূত থাকবে। এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত আদেশ আগামীকাল শনিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা হবে।

আরও পড়ুন: শাস্তির মুখে তিতে খেলার জন্য এটা খুবই খারাপ একটা মাঠ। স্বাভাবিক গতি ধীর করে দেয় এটা, যারা সৃষ্টিশীল খেলা খেলতে চায়, তারা তা পারেন না। কোপা আমেরিকায় কলম্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে কোনোমতে জয় পাওয়ার পর মাঠ নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দেন ব্রাজিলের কোচ তিতে।

তাই দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবলের দেওয়া শাস্তির মুখে পড়তে হলো ব্রাজিল প্রশিক্ষককে। এজন্য ৫ হাজার ডলার জরিমানা দিতে হবে তাকে। টানা তিন ম্যাচে জিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই দ্বিতীয় পর্বে উঠেছে ব্রাজিল। কিন্তু কলম্বিয়ার বিপক্ষে গ্রুপের শেষ ম্যাচটিতে জয় পেতে রীতিমতো ঘাম ঝরেছে সেলেসাওদের।

এদিন গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়েছিল ব্রাজিল। লুইস দিয়াসের দুর্দান্ত এক গোলে খেই হারিয়ে ফেলে ব্রাজিল। তবে শেষ পর্যন্ত নেইমাররা ২-১ গোলের জয় নিয়ে গ্রুপ সেরা হয়ে মাঠ ছাড়ে। তবে খেলা শেষ হওয়ার পর মাঠের অবস্থা নিয়ে সমালোচনায় মুখর হন তিতে। ব্রাজিল কোচ বলেন, ‘খেলার জন্য এটা খুবই খারাপ একটা মাঠ।

স্বাভাবিক গতি ধীর করে দেয় এটা, যারা সৃষ্টিশীল খেলা খেলতে চায়, তারা তা পারেন না।’ শুধু তিতে নন, কিছুদিন আগে এমন মাঠের সমালোচনা করেছিলেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসিও। মাঠ প্রস্তুতের পর্যাপ্ত সুযোগ পায়নি ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন। ইউরোপীয় মানদণ্ডের বিচারে পিছিয়ে আছে এমন কিছু মাঠেই খেলতে হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে তিতে বলেন, ‘মাঠ প্রস্তুত করার জন্য সময়টাও খুব কম পাওয়া গেছে। এত কম সময়ে করা সম্ভব না। তবে মাঠের কারণে দুই দলকেই ভুগতে হয়েছে।’ কলম্বিয়ার বিপক্ষে জয়ের পাশাপাশি রেকর্ড বইয়ে নাম লিখিয়েছেন সেলেসাও কোচ তিতে। কলম্বিয়াকে ২-১ গোলে হারানোর মাধ্যমে ব্রাজিলকে টানা ১০টি ম্যাচ জেতালেন ৬০ বছর বয়সী এই কোচ।

এর আগে টানা ৯টা ম্যাচ জিতেছিলেন তিতে। তবে ১০ নম্বর ম্যাচে এই কলম্বিয়ার কাছেই ১-১ গোলে ড্র করে হোঁচট খেয়েছিলেন। প্রতিপক্ষ একই। কিন্তু এবার আর কোনো ব্যত্যয় নয়। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত লড়াই করে কষ্টার্জিত জয়ে রেকর্ড করলেন ব্রাজিল কোচ। তিতেকে হাতছানি দিচ্ছে মারিও জাগালোর আরেকটি রেকর্ড।

খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে ব্রাজিলের বিশ্বকাপজয়ী এই কোচ ১৯৯৭ সালে দলকে টানা ১৪টি ম্যাচ জিতিয়েছিলেন, যা ব্রাজিলের রেকর্ড। সেই রেকর্ড ছুঁতে হলে ব্রাজিলকে জিততে হবে আরও চারটি ম্যাচ। তবে টানা এই চারটি ম্যাচ জিতলে এবারের কোপার শিরোপাটাও যাবে ব্রাজিলের ঘরে।

তাই টানা জয়ের রেকর্ড স্পর্শ আর শিরোপার স্বাদ, দু’টিই হয়তো একসঙ্গে পেতে চাইবেন তিতে। কলম্বিয়াকে হারিয়ে তিন ম্যাচে পূর্ণ নয় পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপে সেরা হয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছে ব্রাজিল। নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে সেলেসাওদের প্রতিপক্ষ ইকুয়েডর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *